close(x)
 

সরকার সংবিধান থেকে একচুলও নড়বে না

বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের প্রতিবাদে রাজধানীতে গতকাল শোভাযাত্রা বের করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ফখরুল আজ কী বলেছেন? পদযাত্রা জয়যাত্রা, বিজয়যাত্রা। আসলে পদযাত্রা হলো পরাজয়যাত্রা আর পতনযাত্রা। তাঁদের পতনযাত্রা শুরু হয়ে গেছে।

ওবায়দুল কাদের গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা শুরুর আগে সমাবেশে এ কথা বলেন।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে এই সমাবেশ হয়।
বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন কী দিয়েছে? তত্ত্বাবধায়ক সরকার, শেখ হাসিনার পদত্যাগ, সরকারের পদত্যাগ দিয়েছে? তাদের কাছে দাবি করে বিএনপি কী পেয়েছে? একটা হাঁসের ডিম, ঘোড়ার ডিম।’

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আমেরিকানরা এসেছে, মনে করছে তারা তত্ত্বাবধায়ক দেবে। তারা এলো, চলে গেল।

সরকার সংবিধান থেকে একচুলও নড়বে না
বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের প্রতিবাদে রাজধানীতে গতকাল শোভাযাত্রা বের করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন এলাকা থেকে তোলা। ছবি : শেখ হাসান
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ফখরুল আজ কী বলেছেন? পদযাত্রা জয়যাত্রা, বিজয়যাত্রা। আসলে পদযাত্রা হলো পরাজয়যাত্রা আর পতনযাত্রা। তাঁদের পতনযাত্রা শুরু হয়ে গেছে।

ওবায়দুল কাদের গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা শুরুর আগে সমাবেশে এ কথা বলেন।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে এই সমাবেশ হয়।
বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন কী দিয়েছে? তত্ত্বাবধায়ক সরকার, শেখ হাসিনার পদত্যাগ, সরকারের পদত্যাগ দিয়েছে? তাদের কাছে দাবি করে বিএনপি কী পেয়েছে? একটা হাঁসের ডিম, ঘোড়ার ডিম।’

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আমেরিকানরা এসেছে, মনে করছে তারা তত্ত্বাবধায়ক দেবে। তারা এলো, চলে গেল।

বিএনপিকে দিয়ে গেল ঘোড়ার ডিম।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সংসদ বিলুপ্তি হবে না এবং শেখ হাসিনার পদত্যাগের প্রশ্নই ওঠে না। অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন, নির্বাচন কমিশন নির্বাচন পরিচালনা করবে। সংবিধান থেকে এক চুলও নড়বে না সরকার।

শেখ হাসিনা নির্বাচনকালীন সরকারের দায়িত্ব পালন করবেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপির কথায় প্রধানমন্ত্রী সরে যাবেন? যতই ষড়যন্ত্র করেন, বিষোদগার করেন, কোনো লাভ হবে না। আমরা আমেরিকা, ইউরোপীয় ইউনিয়নকে বলেছি, আমরা নির্বাচনের আগে ও পরে শান্তি চাই। তত্ত্বাবধায়ক আমরা চাই না, চায় বিএনপি।’

সমাবেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ‘বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। এই সন্ত্রাসী দল মিরপুরে ছাত্রলীগের কর্মীদের ওপর হামলা করেছে।

মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দিয়েছে। এরই মধ্যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড শুরু করেছে। আমরা রাজপথে মোকাবেলা করব।’
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ জেগে উঠেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে চলছে।’

সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, ‘বিএনপি ২০১৪-১৫-১৮ সালে অগ্নিসন্ত্রাস করে দেশে অরাজক পরিস্থিতি তৈরি করেছিল। বিএনপি আবারও তার পুরনো চরিত্রে ফিরে এসেছে। এ জন্য আমাদের শান্তি সমাবেশ করতে হচ্ছে।’

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী। সমাবেশ শেষে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শান্তি ও উন্নয়ন শোভাযাত্রা শুরু করেন। শোভাযাত্রায় বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে, বর্ণিল সাজে নেতাকর্মীরা শোভাযাত্রায় যোগ দেন। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন থেকে শুরু হয়ে শাহবাগ, এলিফ্যান্ট রোড, সায়েন্স ল্যাব হয়ে ঐতিহাসিক ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে গিয়ে শোভাযাত্রা শেষ হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *