চট্টগ্রামে বিএনপির কার্যালয়ে হামলার অভিযোগ মামলা, পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ আদালতের

গত বুধবার চট্টগ্রামে বিএনপির কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুর চালানো হয়।

চট্টগ্রামে বিএনপির কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুরের অভিযোগে মামলা হয়েছে। আজ সোমবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জুয়েল দেবের আদালতে মামলাটি করেন বিএনপির কার্যালয়ের তত্ত্বাবধায়ক কাজী মাহমুদ হোসেন।

বাদীর আইনজীবী হাসান আলী চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ তা নেয়নি। তাই তাঁরা আদালতে মামলা করেছেন। মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মামলায় নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিমসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। মামলায় নাম থাকা বাকি পাঁচ আসামি হলেন আনোয়ারুল আলম চৌধুরী, ওমর খৈয়াম, গোবিন্দ দাস, মোহাম্মদ তুষার ও ব্ল্যাক হৃদয়। তাঁরা আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কর্মী। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয়ের ২০০ থেকে ২৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত বুধবার কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চট্টগ্রামে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। কর্মসূচি শেষ হওয়ার পর সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিমের নেতৃত্বে বিএনপির কার্যালয়ে হামলা হয়। কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানো হয়। এতে প্রায় ৮০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। কার্যালয়ে থাকা এক লাখ টাকা দামের একটি ল্যাপটপ লুট হয়েছে। হামলাকারীরা কার্যালয়ের বাইরে ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটান।

জানতে চাইলে নুরুল আজিম আজ দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, যে ঘটনা ও সময়ের কথা বলা হচ্ছে, তখন তিনি নগরের লালখান বাজার আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয় ছিলেন। নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর কার্যালয়ে হামলাকারীদের মধ্যে কয়েকজনে তাঁরা পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছিলেন। এই আক্রোশ থেকে বিএনপির করা মামলায় তাঁর নাম দেওয়া হয়েছে।

গত বুধবার রাতে চট্টগ্রাম-১০ (পাহাড়তলী-হালিশহর-ডবলমুরিং) আসনের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুর, পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর, যানবাহন চলাচলে বাধা দেওয়ার অভিযোগে দুটি মামলা হয়। নগরের খুলশী থানায় করা এই দুই মামলার একটির বাদী আওয়ামী লীগের কর্মী আরিফুল ইসলাম। আরেকটির বাদী পুলিশ।

পুলিশ সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের কর্মীর করা মামলায় নগর বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের অজ্ঞাতপরিচয়ের ২৫০ থেকে ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। অন্যদিকে, খুলশী থানার পুলিশের করা মামলায় ৪৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতপরিচয়ের ২৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে বিএনপির কার্যালয় অবস্থিত। গত বুধবার বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির মিছিল থেকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে। পরে বিএনপির কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুর হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *