যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তথ্য পাঠাতে নির্দেশ মাউশির

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর

সম্প্রতি অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের কারণে চট্টগ্রাম, বান্দরবান, কক্সবাজারসহ দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। এ কারণে এসব অঞ্চলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তিনদিন বন্ধসহ বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) থেকে শুরু হওয়ার এইচএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়।

এ অবস্থায় বন্যা ও অতিবৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। আগামী ২২ আগস্টের মধ্যে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য পাঠাতে বলা হয়েছে আঞ্চলিক উপপরিচালকদের।

অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড ইভ্যালুয়েশন উইং থেকে এসব তথ্য চেয়ে এ সংক্রান্ত চিঠি আঞ্চলিক উপপরিচালকদের পাঠানো হয়েছে।

পরিচালক অধ্যাপক মো. আমির হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, অতিবৃষ্টি ও বন্যাকবলিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম, ক্ষতিগ্রস্ত শ্রেণিকক্ষের সংখ্যা, পাঠদান চালানো সম্ভব হচ্ছে কি-না ইত্যাদি তথ্য নির্ধারিত ছকে অন্তর্ভুক্ত করে ই-মেইলে পাঠাতে বলা হয়েছে আঞ্চলিক উপপরিচালকদের।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বর্ষায় অতিবৃষ্টির কারণে উজান থেকে পানি নেমে আসায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। আঞ্চলিক উপপরিচালকদের তার আওতাধীন জেলা বা উপজেলায় কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্যাকবলিত থাকলে তার তথ্য ও শিক্ষার্থীর তথ্য সংযুক্ত ছক অনুযায়ী মনিটরিং অ্যান্ড ইভ্যালুয়েশন উইংয়ের ই-মেইলে ([email protected]) আগামী ২২ আগস্টের মধ্যে পাঠাতে অনুরোধ করা হলো।

জানা গেছে, নির্ধারিত ছকে বন্যাকবলিত জেলার নাম, বন্যা কবলিত উপজেলার নাম, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম, শিক্ষার্থীর সংখ্যা, ক্ষতিগ্রস্ত শ্রেণিকক্ষের সংখ্যা, পাঠদান কার্যক্রম চালানো সম্ভব হচ্ছে কি-না, আংশিক সম্ভব হচ্ছে কি-না; না পুরোপুরি অসম্ভব তা ছকে উল্লেখ করে মন্তব্যসহ ই-মেইলে পাঠাতে বলা হয়েছে আঞ্চলিক উপপরিচালক।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *