close(x)
 

কোথায় কী হচ্ছে আমরা জেনে যাচ্ছি, তারা দেশ ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে: নুরুল হক

বিএনপির সঙ্গে যুগপৎ আন্দোলনের অংশ হিসেবে সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে শুক্রবার পল্টনে সমাবেশে বক্তব্য দেন গণ অধিকার পরিষদের একাংশের সভাপতি নুরুল হক

সরকারের পদত্যাগের দাবিতে চূড়ান্ত কর্মসূচির সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন গণ অধিকার পরিষদের একাংশের সভাপতি নুরুল হক (নুর)। তিনি বলেছেন, ‘সবাইকে আহ্বান জানাব, ঢাকায় চলে আসুন। এখন চূড়ান্ত দফা দেওয়ার সময় এসেছে। তাদের (ক্ষমতাসীনদের) কাঁপন শুরু হয়েছে। দেশ ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

আজ শুক্রবার নুরুল হকের নেতৃত্বাধীন গণ অধিকার পরিষদ রাজধানীর পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। বিএনপির সঙ্গে যুগপৎ আন্দোলনের অংশ হিসেবে সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে এ সমাবেশ হয়।
সমাবেশে নুরুল হক বলেন, ‘প্রশাসনের অনেকের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ আছে।

কোথায় কী হচ্ছে, তা আমরা জেনে যাচ্ছি। তাই ইন্টারনেট বন্ধ করে লাভ নেই। তারা আমাদের জানিয়েছে, আমরা যদি দাঁড়িয়ে যাই, তারা আমাদের সঙ্গে দাঁড়িয়ে যাবে।’ নেতা–কর্মীদের আগামীর সব কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপির সমাবেশ সামনে রেখে কয়েক দিন ধরে ঢাকার প্রবেশপথগুলোয় তল্লাশিচৌকি বসিয়েছে পুলিশ। বাস, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার থামিয়ে যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বিএনপি নেতাদের বাড়ি ও হোটেলে হোটেলে তল্লাশি চালিয়ে দলটির নেতা–কর্মীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে নুরুল হক বলেন, সারা দেশে অলিখিত হরতাল করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। মাফিয়ারা গাড়িতে পতাকা লাগিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করছে। এরপরও বিরোধীদের থেকে তিন ভাগের এক ভাগ লোক হয়নি তাদের শান্তি সমাবেশে।

আন্দোলন শুরু হয়ে গেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিজয় ছাড়া আর এই আন্দোলন থামবে না। দাবি আদায় না করে ঢাকা ছাড়া হবে না।

গণ অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ খান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ শান্তি সমাবেশ নামে আমাদের আন্দোলন বানচাল করার চেষ্টা করছে। পুলিশ মানুষের ফোন চেক করছে। মানুষের অধিকার হরণ করছে। আমাদের কার্যালয়ের সামনে পুলিশের ব্যারিকেড। আমরা হামলা মামলায় ভয় পাই না।’

সমাবেশ শেষে গণ অধিকার পরিষদের নেতা–কর্মীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে পল্টন মোড় হয়ে আবার কেন্দ্রীয় কার্যালয় এসে শেষ হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *