দেশ-বিদেশে সবাই জানুক ভালো নির্বাচন করতে পারি: ইসি রাশেদা

ইসি রাশেদা

আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের অন্তত পাঁচ মাস আগে নিরুত্তাপ উপ নির্বাচনে সবার নজর না থাকলেও ঢাকা ১৭ আসনে ‘সুন্দর নির্বাচন’ করে সবাইকে দেখাতে চায় নির্বাচন কমিশন।

শুক্রবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিটিউটে (ইটিআই) এ উপ নির্বাচনের শতাধিক প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা।

ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, “সততা, নিরপেক্ষতা, আন্তরিকতা, পেশাদারিত্ব মনোভাব নিয়ে যার যেটুকু দায়িত্ব তা পালন করবেন যাতে অবাধ, সুষ্ঠু, সুন্দর, নির্বাচন করতে পারি। দেশ, বহির্বিশ্ব, আন্তর্জতাতিক সম্প্রদায় সবাই জানুক আমরা একটা সুন্দর নির্বাচন করতে পারি।”

চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ঢাকার এ আসনের উপ নির্বাচনে আগামী ১৭ জুলাই ভোট হবে।

ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক একেএম হুমায়ূন কবীর, ঢাকার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম, ঢাকার সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খানসহ পুলিশ কর্মকর্তারাও মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে রাশেদা সুলতানা বলেন, “ভোট সুন্দর হলে তার সমস্ত ক্রেডিট হবে যারা মাঠে কাজ করছেন তাদের। আর ডিসক্রেডিট যদি থেকে থাকে সেটি আমরা মাথায় নিয়ে নেব। ঠিকমত কাজ করবেন, দেখবেন আমরাও সার্থক হয়ে গেছি।”

অন্য নির্বাচনের মতো ব্যালট পেপারের এ ভোট নির্বাচন কমিশন থেকে সিসি ক্যামেরায় পর্যবেক্ষণ করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কেন্দ্রের প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের কার্যক্রমও দেখা হবে। ভোটের দিন ভালো পরিবেশে ভোটাররা যাতে এসে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন।

অংশগ্রহণমূলক না হওয়ায় আগ্রহ নেই

গুলশান-ক্যান্টনমেন্ট থানাধীন উত্তর সিটি করপোরেশনের চারটি ওয়ার্ড ও ক্যান্টনমেন্ট এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা ১৭ আসনের উপ নির্বাচন সোমবার। ৩ লাখ ২৫ হাজার ২০৫ ভোটারের এ আসনে ১২৪টি কেন্দ্র রয়েছে।

সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ব্যালট পেপারে ভোট হবে। আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টির প্রার্থীসহ আটজন ভোটে রয়েছেন।

জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণ পরিষদ (জানিপপ), সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ও যুব উন্নয়ন সংস্থার ২১ জন পর্যবেক্ষক ভোট দেখবেন।

সংসদ নির্বাচনের কয়েক মাস আগে ঢাকার এ উপ নির্বাচন নিয়ে সাধারণের তেমন নজর ও আগ্রহ নেই বলে মনে করেন নির্বাচন বিশ্লেষক আব্দুল আলীম।

তিনি বলেন, “সংসদের ভোটের আর মাত্র কয়েক মাস। সবার নজর জাতীয় নির্বাচন, অংশগ্রহনমূলক নির্বাচনের দিকে। ঢাকা ১৭ উপ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হচ্ছে না। ব্যালটে ভোট করছে এটাই নতুন। এটা ইসির শুধু রুটিন কাজ। এ উপ নির্বাচন নিয়ে আগ্রহ নেই তেমন কারও। ভালো নির্বাচন হবে আশা করি।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *