close(x)
 

সাঈদীর মৃত্যুতে শোক জানিয়ে পোস্ট, ছাত্রলীগের ৬ নেতা সাময়িক বহিষ্কার

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আমৃত্যু কারাদণ্ড পাওয়া জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

আজ বুধবার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বহিষ্কৃত নেতা-কর্মীরা হলেন আখাউড়া শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক বাইজিদ খাঁ, আশুগঞ্জের তালশহর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিয়াজ সোহান, আখাউড়ার মোগড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফুরকান আহমেদ, আখাউড়া পৌর ছাত্রলীগের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সভাপতি রবিন খান, কসবার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য নাজমুল সরকার ও সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মী রিয়াজ উদ্দিন খান।

ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাস সূত্রে জানা গেছে, ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছবিসংবলিত পোস্টার, সংবাদ কার্ড শেয়ার করে কেউ শোক প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ তাঁর মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করার আহ্বান জানান। দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যুর ঘটনার দিন রাতে তাঁরা নিজ নিজ ফেসবুকে পোস্টগুলো দেন। কিছুক্ষণ পর তাঁরা আবার সেই পোস্ট মুছে ফেলেন।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা বাইজিদ খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যুর দুই ঘণ্টা আগে আমার ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়। আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা পর ফেসবুক আইডি ফিরে পাই। ফেসবুকে ঢুকে এই পোস্ট দেখে সঙ্গে সঙ্গেই তা মুছে ফেলি।’

আরেক ছাত্রলীগ নেতা ফুরকান আহম্মেদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে ছিলাম। তাঁর (সাঈদী) মৃত্যুর সংবাদ শুনে তাৎক্ষণিকভাবে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছি। পরে মুছে ফেলেছি। মৃত্যুর সংবাদ শুনে পোস্ট দিয়েছি। এখন রাজনৈতিকভাবে বেকায়দায় পড়ে গেছি।’

জানতে চাইলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ছাত্রলীগের ওই নেতারা সংগঠনের আদর্শবিরোধী কাজ করেছেন। সংগঠনের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাঁদের সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। তিনি বলেন, মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে ছাত্রলীগের নীতি ও আদর্শের পরিপন্থী কাজ করেছেন। অবশ্য পরে তাঁরা এসব পোস্ট মুছে ফেলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *